Header Border

ঢাকা, রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
শিরোনাম
শাহরাস্তিতে উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মকবুল হোসেন পাটোয়ারীকে সংবর্ধনা মতলব উত্তরে ব্যবসায়ীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা চাঁদপুরের ৫০ গ্রামে রাত পোহালেই ঈদ জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ হলেন হাজীগঞ্জের ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর রাশেদা আতিক রোজী হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে ঈদ-উল আজহার ৩টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে হাজীগঞ্জে হযরত মাদ্দাহ খাঁ (রহ.) জামে মসজিদে ঈদ-উল আজহার জামাত সকাল ৮টায় হাজীগঞ্জের হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ‘র ১০ কেজি চাল বিতরণ হাজীগঞ্জে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে ভাই-বোনের মৃত্যু হাজীগঞ্জে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া-মাহফিল হাজীগঞ্জের ৪ নং কালচোঁ দক্ষিণ ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ‘র চাল বিতরণ

হাজীগঞ্জ বলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সরকারির চেয়ে ব্যক্তি উন্নয়ন বেশী

Oplus_0

হাজীগঞ্জের বলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৬৫ সালে প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন সরকারের তেমন কোন দৃশ্যমান উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। সর্বশেষ শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ২০০৮-০৯ বর্ষে স্থানীয় সাংসদ মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের হাত ধরে ৩ তলা বিশিষ্ট ভবনের দেখা পায় প্রতিষ্ঠানটি। বিভিন্ন সময়ে মূলত ব্যক্তিকেন্দ্রীক উন্নয়ন বেশী হয়েছে বলে স্থানীয়দের দাবি।
জানাযায়, বলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাতার পর থেকে সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন অনেকেই। তার মধ্যে অন্যতম ধারাবাহিক উন্নয়ন হয়েছে সিকোরেক্স কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা, বলিয়া সাহেব বাড়ির মরহুম এটিএমএ কুদ্দুস ও তার মৃত্যুর পর বর্তমান সভাপতি ছেলে বিশিষ্ট শিল্পপতি ফারহান কুদ্দুস।
সরেজমিনে দেখা যায়, বলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি ফারহান কুদ্দুস ও বিদ্যালয়ের আজীবন দাতা সদস্য আওলাদ হোসেন নবীরের পরিবারের পক্ষ থেকে একাধিক উন্নয়নের ছোয়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি পেয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন হচ্ছে বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন, ছাত্রাবাস, বিজ্ঞান ভবন, আর্সেনিকমুক্ত গভীর নলকূপ , ওয়ার্ক ওয়ে, ভাউন্ডারি এরিয়া নির্মাণ। তাছাড়া এলাকায় গণ কবরের জন্য ৪৩ শতাংশ , গত বছর বলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের জন্য সাড়ে ৩১ শতাংশ জমি দান করা হয়। প্রতিবছর ৩০/৪০ জন গরীব শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে বই কাগজসহ সম্পন্ন ফ্রীতে পড়াশোনার সুযোগ চালিয়ে আসছেন বলিয়া সাহেব বাড়ির এ দুই পরিবার।
বিদ্যালয়ের বিদ্যুৎসাহী সদস্য কবির হোসেন মুন্সী বলেন, আমরা এ ধরনের ব্যক্তিকে প্রতিষ্ঠানে দেখতে চাই যেন সব সময় বিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকে।
বলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের আজীবন সদস্য আওলাদ হোসেন নবীন বলেন, আমি দাতা সদস্য হিসাবে আমার ও সভাপতির পরিবারের পক্ষ থেকে এলাকায় গণ কবরের জন্য ৪৩ শতাংশ , স্কুলের জন্য সাড়ে ৩১ শতাংশ জমি দান করা হয়। তাছাড়া বিদ্যালয়ে নানা উন্নয়নমূলক কাজ আমাদের হাত দিয়ে হয়ে আসছে। বর্তমানে একটি মহল গায়ে জ্বালা লেগে প্রতিষ্ঠানের সৌন্দর্য নষ্ট করতে ম্যানেজিং কমিটিতে প্রবেশ করতে চায়। তাদের এ অপচেষ্টা অভিভাবকরা সফল হতে দিবে না।
বিদ্যালয়ের  দাতা সদস্য আওলাদ হোসাইন নবী আরো বলেন, ওনার মরহুম চাচা বীর মুক্তিযুদ্বা ইকবাল হোসেন রাস্তার পাশের মুল্যবান ১৩.৫ শতাংশ জমি বিদ্যালয়ের জন্য দান করেছেন এবং সভাপতি ফারহান কুদ্দুসের পরিবার থেকে ১৮ শতাংশ এই মোট ৩১.৫ শতাংশ জমি গত এক বছরে ওনারা বিদ্যালয়ের জন্য দান করেছেন । বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের সুপেয় পানির জন্য ওয়াটার ট্রিটম্যান্ট প্ল্যান্ট বসানো , প্রতি বছর ৩০/৪০ জন গরীব ও মেধাবী ছাত্র ছাত্রীর লেখাপড়ার খরচ , তাদের ইউনিফরম , শিক্ষা উপকরন বিতরন , আধুনিক বিজ্ঞান ভবন নির্মান এসব দাতা সদস্য আওলাদ হোসেনের চাচার পরিবারসহ করা হয়েছে , দোতলা বিশিস্ট ছাত্রাবাস , ১৭ টি সিসিটিভি ক্যামরা স্হাপন , প্রতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করা ছাত্র ছাত্রীদের জন্য আপ্যায়নের ব্যবস্হা , সুযোগ্য শিক্ষক মন্ডলীর জন্য আধুনিক মান সম্মত মিলনায়তনের ব্যবস্হা করা । এসব কিছু সভাপতি  পরিবারের পক্ষ থেকে করা হয়েছে যাঁহার জ্বলন্ত সাক্ষী বিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় আসালেই যে কেউ দেখতে পাবে ।
স্থানীয় অভিভাবক জায়েদ হোসেন বলেন, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হতে আক্ষেপ কানাডার নাগরিক প্রবাসী হাছান ইমাম। তিনি ১০ হাজার টাকা করে তার মনোনীত ৫ জন সদস্যের খরচ চালিয়ে দল ভারি করছেন। তার এ হীনমন্যতা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান লুটে পরিনত হতে পারে।
নিজস্ব অর্থায়নে যারা বিদ্যালয়ের জন্য কাজ করে  সুনাম বৃদ্ধি করে যাচ্ছেন তাদের এই অগ্রযাত্রাকে ব্যহত করার জন্য এলাকার একটা কুচক্রীমহল সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তারা উপজেলা প্রশাসনকে বিভ্রান্ত করার জন্য বিভিন্ন কাল্পনিক অভিযোগ দায়ের করে বিদ্যলয়ের সুনাম নস্ট করার অপ প্রয়াসে লিপ্ত। সামনের নির্বাচনে তাদেরকে পরাজিত করে এর দাঁত ভাংগা জবাব দেয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষনা করেছেন বিদ্যালয়রে অভিভাবক বৃন্দ।
বলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইকবাল হোসেন বলেন, ২০১৭ সালে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পেয়ে বর্তমান সভাপতি ও দাতা সদস্যের পক্ষ থেকে বিদ্যালয়ের ভূমি জটিলতা নিরসনে ৩১ শতাংশ ভূমি পেয়েছি। তাছাড়া একাডেমিক উন্নয়ন সরকারি বরাদ্দের বাহিরে তাদের অবদান বেশী। তার পরেও গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়া দুই বছর পর পর ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন হচ্ছে। যেই আসুক প্রতিষ্ঠানের ধারাবাহিক উন্নয়নে ব্যক্তিকেন্দ্রীক ছোয়া যেন লেগে থাকে।
আরো পড়ুন  বিয়ের দুই বছরের মাথায় মায়ের বাড়ী গিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

শাহরাস্তিতে উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মকবুল হোসেন পাটোয়ারীকে সংবর্ধনা
মতলব উত্তরে ব্যবসায়ীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা
চাঁদপুরের ৫০ গ্রামে রাত পোহালেই ঈদ
জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ হলেন হাজীগঞ্জের ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর রাশেদা আতিক রোজী
হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে ঈদ-উল আজহার ৩টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে
হাজীগঞ্জে হযরত মাদ্দাহ খাঁ (রহ.) জামে মসজিদে ঈদ-উল আজহার জামাত সকাল ৮টায়

আরও খবর