Header Border

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
শিরোনাম
চিকিৎসার জন্য ভারতে গেলেন বিএনপি নেতা ইবনে মিজান রনি মতলব উত্তরে শিক্ষক নেতা বাতেনের মাতার ইন্তেকাল  দাফন সম্পন্ন মতলব-গজারিয়া সংযোগ সেতু স্থান এবং ষাটনল পর্যটন কেন্দ্র পরিদর্শন হাজীগঞ্জে ৬ কেজি গাঁজাসহ আটক-১ হাজীগঞ্জে প্রবাসীর টাকা-পয়সা নিয়ে প্রেমিকের সাথে উধাও গৃহবধু, থানায় অভিযোগ! শাহরাস্তিতে চেয়ারম্যান পদে মকবুল হোসেন পাটোয়ারী, ইমদাদুল হক মিলন ও হাসিনা আক্তার বেসরকারিভাবে নির্বাচিত নিরব ভোট বিপ্লব ঘটিয়ে উপজেলা পরিষদের নয়া চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন মিয়াজী দশানী মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের জানাজা শেষে দাফন   নাউরী আহম্মদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা ১১৫তম রোটারী কনভেনশনে যোগ দিতে সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন রোটা. মাহবুবুর রহমান সুমন

আমি গর্ব করে বলতে চাই আমার বাবা রিক্সাচালক : হারিছা

রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাওয়া বরিশালের বানারীপাড়র দরিদ্র রিকশাচালক মিজানুর রহমানের মেধাবী কন্যা সাদিয়া আফরিন হারিছা বাবা- মায়ের মুখ উজ্জ্বল করেছেন।সকাল থেকে রিকশা চালিয়ে বাবা চাল নিয়ে আসতেন বিকালে। রান্না করে ভাত খেতাম সন্ধ্যায়, ক্লান্ত শরীরে রাতে পড়তে পারতাম না। তবু অনেক কষ্ট করে পড়াশোনা করে মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পেয়েছি। বাবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।’

এভাবেই কথাগুলো বললেন বরিশালের বানারীপাড়ার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের রিকশাচালক মিজানুর রহমানের মেয়ে সাদিয়া আফরিন হারিছা। এবার রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পাওয়ার পর যেখানে আনন্দিত হওয়ার কথা, সেখানে হারিছার পরিবারে বিরাজ করছে আর্থিক দৈন্যতা। সফলতা পেলেও মেয়েকে কীভাবে মেডিক্যালে ভর্তি করবেন, কীভাবে চলবে পড়াশোনা; এসব নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছে হতদরিদ্র পরিবারটি।

অটোরিকশাচালক মিজানুর রহমান হাওলাদারের তৃতীয় কন্যা হারিছা। বড় মেয়ে মাস্টার্স, মেজো মেয়ে ডিগ্রি এবং ছোট মেয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ে।

হারিছা বলেন, ‘শুরু থেকেই স্বপ্ন ছিল মানবিক চিকিৎসক হওয়ার। পরিবারে আর্থিক সংকট থাকায় প্রাইভেট পড়া, এমনকি ঠিকমতো পড়াশোনার সুযোগ পাইনি। তবে প্রতিটি ক্লাসে মন দিয়ে শিক্ষকদের পড়া আয়ত্ত করতাম। স্কুল এবং কলেজশিক্ষকদের সবসময় সহানুভূতি পেয়েছি। অনেক কষ্ট করে মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পেয়েছি। কিন্তু স্বপ্নপূরণে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে আর্থিক সংকট। হয়তো কেউ সহায়তা করলে এই সংকট কেটে যাবে।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জাতীয় ও বিভাগীয় পর্যায়ে এ পর্যন্ত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় স্বর্ণ ও ব্রোঞ্জ পদক এবং ৬৭টি সার্টিফিকেট পেয়েছেন হারিছা। রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় ৩০০ নম্বরের মধ্যে ২৭৮ নম্বর পেয়েছেন।

হারিছা বলেন, ‘গর্ব করে বলি আমার বাবা একজন রিকশাচালক। আগে বাবা তরকারি বিক্রি করে আমাদের সংসার চালিয়েছেন। তার আয় দিয়ে আমার এতদূর আসা। যত বাধাই আসুক আমি মানবিক চিকিৎসক হতে চাই। টাকা আয় নয়, চিকিৎসক হয়ে দেশের মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় ভূমিকা রাখবো।’

আরো পড়ুন  যথাযোগ্য মর্যাদায় হাজীগঞ্জ আমিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত 

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

চিকিৎসার জন্য ভারতে গেলেন বিএনপি নেতা ইবনে মিজান রনি
মতলব উত্তরে শিক্ষক নেতা বাতেনের মাতার ইন্তেকাল  দাফন সম্পন্ন
মতলব-গজারিয়া সংযোগ সেতু স্থান এবং ষাটনল পর্যটন কেন্দ্র পরিদর্শন
হাজীগঞ্জে ৬ কেজি গাঁজাসহ আটক-১
দশানী মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের জানাজা শেষে দাফন  
নাউরী আহম্মদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

আরও খবর