Header Border

ঢাকা, রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)
শিরোনাম
ফরিদগঞ্জে ৪’শ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিলেন অর্থোপেডিক্স বিশেষজ্ঞ  ডাঃ তানভীর ভাষার মাসে একজন নিরব ভাষাবিদকে হারিয়ে আমরা বাকরুদ্ধ শাহরাস্তি প্রেসক্লাবের আয়োজনে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা দিবস পালিত শাহরাস্তিতে রাজাপুরা দরবার শরীফের ৫৮তম উরশ মোবারক সম্পন্ন হয়েছে। কালের আর্বতে হারিয়ে গেছে গ্রামবাংলার এতিহ্যবাহী হুক্কা বাচঁতে চায় মতলব উত্তরের ২য় শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থী শুভ  বড় ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ডে পুলিশের নাকের ডগায় আসলামের বেপরোয়া চাঁদাবাজি “নিজের বলার মতো একটা গল্প ফাউন্ডেশন” চাঁদপুর জেলা শাখার উদ্যোক্তা মিটআপ সম্পন্ন বাংলাদেশ আজ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে বিশ্বের বিস্ময়—মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম এমপি

হাটবাজারে অবাধে ডিমওয়ালা মাছ বিক্রি – Rknews71

 

মতলব উত্তর ব্যুরো :
মতলব উত্তরে হাটবাজারে এখন দেদারসে বিক্রি হচ্ছে প্রাকৃতিক জলাশয়ের টেংরা, কৈ, শিং, মাগুর, পুঁটি, চিকরা, চেলা, মলাসহ নানা প্রজাতির ডিমওয়ালা মাছ। ক্রেতাদেরও এসব মাছের প্রতি বিশেষ আকর্ষণ থাকে। এসব মাছের দামও থাকে বেশি। অন্তত কেজিতে দু’শ থেকে তিনশ’ টাকা বেশি।
উপজেলা শহরের ছেংগারচর বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, মাছ বিক্রেতারা তাদের ডালিতে ডিমওয়ালা মাছ সাজিয়ে রেখেছেন। ক্রেতারাও দরদাম করছেন। এক ব্যবসায়ীর দোকানে দেখা গেছে লোভনীয় সাইজের টেংরা মাছ। সবগুলো মাছই জ্যন্ত। অন্তত ৮০ ভাগ মাছেরই পেট ভর্তি ডিম। অন্য সময় এসব টেংরা ৫শ’ থেকে ৬শ’ টাকা কেজি বিক্রি হয়। কিন্তু বিক্রেতা এসব ডিমওয়ালা টেংরার দাম চাচ্ছেন এক হাজার টাকা কেজি। বর্ষার নতুন পানির এ মাছগুলো নদী অঞ্চল থেকে আনা হয়েছে বলে বিক্রেতা জানালেন।
এমনিতেই মতলব উত্তরে মিঠা পানির প্রাকৃতিক জলাশয় দিন দিন কমে যাচ্ছে। রাস্তাঘাট হচ্ছে, আবাসন হচ্ছে। আবার যেসব প্রাকৃতিক জলাশয়ে একসময় ১২ মাস পানি থাকতো, এখন জলবায়ু পরিবর্তন এবং পলি পড়ার কারণে এরকম বহু জলাশয়ে বছরের একটি বড় সময় পানি থাকে না। যে কারণে স্থানীয় জাতের বহু মাছের আবাসস্থল কমেছে, উৎপাদনও কমেছে। বহু মাছের প্রজাতি অস্তিত্বের হুমকিতে রয়েছে। আবার বহু প্রজাতি ইতোমধ্যে বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এখন প্রোটিনের চাহিদা পূরণের জন্য প্রধানত নির্ভর করতে হচ্ছে কৃত্রিম চাষাবাদের ওপর। যদিও চাষাবাদের মাছের উৎপাদন এখন প্রাকৃতিক জলাশয়ের মাছের চেয়ে অনেক বেশি। প্রাকৃতিক জলাশয়ে প্রাকৃতিক নিয়মেই মাছের প্রজনন হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে মানুষের তেমন ভূমিকা নেই, পরিশ্রমও নেই।
কিন্তু কৃত্রিম চাষাবাদের ক্ষেত্রে হ্যাচারি স্থাপন করে মাতৃ মাছের ডিম বের করে পুরুষ মাছের সাহায্য নিয়ে যান্ত্রিক উপায়ে মাছের পোনা উৎপাদন করা হয়। সেগুলিও বাণিজ্যিক ভিত্তিতে হয়ে থাকে। এক শ্রেণীর মধ্যবর্তী পোনা ব্যবসায়ী হ্যাচারি মালিকদের কাছ থেকে পোনা কিনে নিয়ে পুকুর মালিকদের কাছে বিক্রি করে থাকেন। তবে কৃত্রিমভাবে উৎপাদিত মাছের স্বাদ প্রাকৃতিক জলাশয়ের মাছের মত হয় না। এক সময় হ্যাচারিতে কেবল পাঙ্গাশ, তেলাপিয়া আর কার্প জাতীয় মাছের পোনা উৎপাদিত হতো। এখন পাবদা, শিং, মাগুর, কৈ, টেংরা, গোলসা, টাকি, মেনিসহ নানা জাতের ছোট প্রজাতির মাছেরও পোনা উৎপাদিত হচ্ছে। এসব পোনা ফিশারিতে বা পুকুরে অবমুক্ত করে খাবার উপযোগী করা হচ্ছে। এসব ছোট প্রজাতির মাছ এখন বাণিজ্যিক ভিত্তিতে আবাদ হচ্ছে। বাজারে এখন এসব চাষ করা মাছেরই দাপট চলছে।
সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মনোয়ারা বেগমকে ডিমওয়ালা মাছ শিকার ও বাজারে বিক্রির ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপের ব্যাপারে প্রশ্ন করলে জানান, সরকার ইলিশের ডিম পারার মৌসুমের মত মিঠা পানির প্রাকৃতিক জলাশয়ের ক্ষেত্রেও ডিমওয়ালা মাছের মৌসুমে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা দরকার। প্রাকৃতিক জলাশয়ে মাছের প্রজনন অনেক বেড়ে যেতে পারে। তবে আমাদের পক্ষ থেকে ডিমওয়ালা মাছ রক্ষার জন্য প্রচারণা করা হয়।

আরো পড়ুন  শাহরাস্তিতে স্মৃতিস্তম্ভে  প্রশাসনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ডে পুলিশের নাকের ডগায় আসলামের বেপরোয়া চাঁদাবাজি
নারায়ণগঞ্জে অস্ত্র কারখানা শনাক্ত : আটক ১
নারায়ণগঞ্জ শহিদ মিনার : দিনে জুতা পায়ে দিয়ে আড্ডা, রাতে মাদক কারবার
অবৈধ গ্যাস ও রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অরুণ হয়েছেন অর্ধ শত কোটি টাকার মালিক সরকার হারাচ্ছে কোটি কোটি টাকা রাজস্ব
হাজীগঞ্জে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে পিকআপ, দেশীয় অস্ত্র ও সরঞ্জামসহ আটক-১
হাজীগঞ্জে কৃষি জমির মাটি বিক্রির মহোৎসব চলছে

আরও খবর