Header Border

ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
শিরোনাম
হাজীগঞ্জের বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ‘র ১০ কেজি চাল বিতরণ হাজীগঞ্জের কালচোঁ উত্তর ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ‘র ১০ কেজি চাল বিতরণ মতলবে লঞ্চে শুরু হয়েছে নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা মতলব উত্তরে এসিল্যান্ডকে বিদায় ও বরন কিস্তি উঠানোর নামকরে এক সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ দুই সন্তানের জননী  শাহরাস্তিতে এন্টারপ্রেনশিপ অ‍্যান্ড রিসিলিয়েন্স ইন বাংলাদেশ (পার্টনার) এর আওতায় দিনব্যাপী জিএপি সার্টিফিকেশন প্রশিক্ষণ সম্পন্ন উন্নয়ন ও মানবকল্যাণে কাজ করছি” অসহায় জনগণের সাথে আমি রয়েছি। -মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম শাহরাস্তিতে বিক্রি হওয়া নবজাতক শিশুকে উদ্বার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন শাহরাস্তি থানা পুলিশ চাকুরি বিধি মালা তোয়াক্কা না করে দীর্ঘদিন অফিস ফাঁকি দিয়ে নিয়মিত ব্যক্তিগত ব্যবসা পরিচালানা শাহরাস্তিতে ভূমি সেবা সপ্তাহ বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা

হাজীগঞ্জে ১ লাখ টাকায় শিশু সন্তানকে দত্তক দিলেন বাবা-মা

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ, হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি, ||
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে অভাবের তাড়নায় জোবায়েরা আক্তার নামের ১৩ মাস বয়সি শিশু সন্তানকে দত্তক দিলেন এক দম্পতি। মঙ্গলবার দুপুরে হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ৩নং ওয়ার্ড ধেররা-বিলওয়াই গ্রামের ইউনুস মজুমদার বাড়ির মো. বশির ও আছমা আক্তার দম্পতি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে সোমবার দুপুরে চাঁদপুর নোটারী, পাবলিকের কার্যালয়ের মাধ্যমে রাজধানীতে নিঃসন্তান এক পরিবারের কাছে সন্তানকে দত্তক দেওয়ার ঘটনা ঘটে। চিকিৎসা ব্যয় ও ঋণের টাকা পরিশোধে ১ লাখ টাকার বিনিময়ে শিশুটিকে দত্তক দেন এই দম্পতি। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।
শিশুটির বাবা মো. বশির জানান, ২০১৬ সালে সিএনজিচালিত স্কুটারের চাপায় গুরুতর আহত হন তিনি। এরপর চিকিৎসাজনিত কারণে তিনি ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েন। বর্তমানে তিনি টাকার অভাবে চিকিৎসা এবং ঋণ পরিশোধ করতে পারছেনা। এছাড়াও তিনি অসুস্থতার কারনে আয়-রোজগার করতে পারছেন না।
তিনি বলেন, আমার সাড়ে তিন বছর ও তের মাস বয়সি দুইটি কন্যা শিশু রয়েছে। টাকার অভাবে আমার চিকিৎসা, ঋণ পরিশোধ ও বাচ্চাদের খাবার কিনতে (ক্রয়) পারছিনা। এদিকে অসুস্থতার কারনে কাজও করতে পারছিনা। তাই ছোট মেয়েকে দত্তক দিয়ে দিয়েছি। বিনিময়ে তারা আমার চিকিৎসার জন্য ১ লাখ টাকা দিয়েছে।
শিশুটির মা আছমা আক্তার জানান, মেয়ের জন্য পরান পড়ে (মায়া লাগে)। কিন্তু কি করবো, আমার স্বামীর চিকিৎসা দরকার। তিনি অসুস্থতার জন্য কোন কাজ কর্ম করতে পারেন না। তিনি সুস্থ থাকলে আমাদের খাওয়া-পড়া। তাই বাধ্য হয়ে মেয়েটারে দত্তক দিয়েছি।
এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার (ওসি) ইনচার্জ মোহাম্মদ জোবাইর সৈয়দ জানান, বিষয়টি জানা নেই। তবে খোঁজ-খবর নিচ্ছি। পরবর্তীতে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোমেনা আক্তার জানান, পৌরসভার প্যানেল মেয়রকে বিষয়টি দেখতে বলেছি। এছাড়াও ওসি সাহবের সাথে কথা হয়েছে। বিষয়টি আমরা দেখছি।
আরো পড়ুন  হাজীগঞ্জে যুবদল নেতার বাবার দাফন সম্পন্ন

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

হাজীগঞ্জের বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ‘র ১০ কেজি চাল বিতরণ
হাজীগঞ্জের কালচোঁ উত্তর ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ‘র ১০ কেজি চাল বিতরণ
মতলবে লঞ্চে শুরু হয়েছে নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা
মতলব উত্তরে এসিল্যান্ডকে বিদায় ও বরন
কিস্তি উঠানোর নামকরে এক সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ দুই সন্তানের জননী 
শাহরাস্তিতে এন্টারপ্রেনশিপ অ‍্যান্ড রিসিলিয়েন্স ইন বাংলাদেশ (পার্টনার) এর আওতায় দিনব্যাপী জিএপি সার্টিফিকেশন প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

আরও খবর