Header Border

ঢাকা, রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)
শিরোনাম
ফরিদগঞ্জে ৪’শ রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিলেন অর্থোপেডিক্স বিশেষজ্ঞ  ডাঃ তানভীর ভাষার মাসে একজন নিরব ভাষাবিদকে হারিয়ে আমরা বাকরুদ্ধ শাহরাস্তি প্রেসক্লাবের আয়োজনে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা দিবস পালিত শাহরাস্তিতে রাজাপুরা দরবার শরীফের ৫৮তম উরশ মোবারক সম্পন্ন হয়েছে। কালের আর্বতে হারিয়ে গেছে গ্রামবাংলার এতিহ্যবাহী হুক্কা বাচঁতে চায় মতলব উত্তরের ২য় শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থী শুভ  বড় ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ডে পুলিশের নাকের ডগায় আসলামের বেপরোয়া চাঁদাবাজি “নিজের বলার মতো একটা গল্প ফাউন্ডেশন” চাঁদপুর জেলা শাখার উদ্যোক্তা মিটআপ সম্পন্ন বাংলাদেশ আজ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে বিশ্বের বিস্ময়—মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম এমপি

নিউ মার্কেটে এলাকায় সংঘর্ষের মামলার প্রধান আসামি মকবুল গ্রেপ্তার

ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সঙ্গে নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষের মামলার প্রধান আসামি বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার বিকালে ধানমণ্ডির বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, মামলার ভিত্তিতেই মকবুল হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গত ১৭ই এপ্রিল রাতে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ী ও দোকানকর্মীদের সংঘর্ষ শুরু হয়। এরপর রাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলেও মঙ্গলবার সকাল ১০টার পর থেকে ফের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। রক্তক্ষয়ী সংঘাতে দু’দিন নিউ মার্কেট এলাকায় অচলাবস্থার পর বুধবার রাতে যখন সমঝোতা বৈঠকের তোড়জোড় চলছিল, তখন রাত ৯টার পর তিনটি মামলা হয়। এর একটিতেই আসামির তালিকায় ২৪ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। সেই মামলাটিতে ১ নম্বরে রয়েছে আইনজীবী মকবুলের নাম। এই তিনটি মামলার মধ্যে দুটি করেছে পুলিশ।

একটি করেছেন সংঘর্ষে প্রাণ হারানো নাহিদ হাসানের চাচা মো. সাঈদ। হত্যার অভিযোগে করা এই মামলায় আসামির তালিকায় কারও নাম উল্লেখ করা হয়নি। সংঘর্ষের সময় হাতবোমা ফাটানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিস্ফোরক আইনে মামলাটি করেছেন নিউ মার্কেট থানার এসআই মেহেদী হাসান। এতে আসামি হিসেবে ১৫০ থেকে ২০০ জনের কথা বলা হলেও সবাই অজ্ঞাতনামা। দাঙ্গা-হাঙ্গামা, জ্বালাও-পোড়াও, পুলিশের কাজের বাধা দেওয়ার অভিযোগে নিউ মার্কেট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়ামিন কবির যে মামলা করেছেন, তাতেই শুধু আসামির তালিকায় ২৪ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। আর অজ্ঞাতনামা আসামি হিসেবে ২০০ থেকে ৩০০ জন ব্যবসায়ী ও দোকানকর্মী এবং ৬০০-৭০০ কলেজ শিক্ষার্থীর কথা বলা হয়েছে এজাহারে। ২৪ জন আসামির মধ্যে মকবুল ছাড়াও রয়েছেন- আমির হোসেন আলমগীর, মিজান, টিপু হাজি জাহাঙ্গীর হোসেন পাটোয়ারী, হাসান জাহাঙ্গীর মিঠু, হারুন হাওলাদার, শাহ আলম শন্টু, শহিদুল ইসলাম শহিদ, জাপানি ফারুক, মিজান বেপারী, আসিফ, রহমত, সুমন, জসিম, বিল্লাল, হারুন, তোহা, মনির, বাচ্চু, জুলহাস, মিঠু, মিন্টু ও বাবুল।

আরো পড়ুন  শাহরাস্তিতে সোশ্যাল একটিভিটিস অ‍্যাওয়ার্ড সম্মাননা পদক পেলেন রায়শ্রী দক্ষিণ ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ আব্দুর রাজ্জাক - Rknews71

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ডে পুলিশের নাকের ডগায় আসলামের বেপরোয়া চাঁদাবাজি
নারায়ণগঞ্জে দানিয়াল হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার 
নারায়ণগঞ্জে অস্ত্র কারখানা শনাক্ত : আটক ১
নারায়ণগঞ্জে অস্ত্র কারখানা শনাক্ত : আটক ১
ফতুল্লায় ক্লু-লেস হত্যার রহস্য উদঘাটন, প্রধান আসামি গ্রেফতার
নিখোঁজের ৬ দিন‌ পর নারীর লাশ মিলল ডোবায় 

আরও খবর