Header Border

ঢাকা, শুক্রবার, ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)
শিরোনাম
মতলব উত্তরে জাটকা রক্ষা সংক্রান্ত টাস্কফোর্স কমিটির সভা হাজীগঞ্জে ৫ ঘন্টার মধ্যে অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ ভন্ড আলতাফ হুসাইনের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক শেখ সুমনের উপর হামলা হাজীগঞ্জে ইমন হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা, ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাসহ আসামি ২৮ হাজীগঞ্জে চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীদের সাথে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় মতলব উত্তরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হচ্ছেন লাভলী চৌধুরী পিপিএম পদক পেলেন মোহনপুর নৌপুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ মুনিরুজ্জামান  মতলব উত্তরে ইমামপুর পল্লী মঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা গ্রামাঞ্চলের শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করেই বইমেলার আয়োজন করি: অধ্যাপক ড. মোস্তফা জামান ফরিদগঞ্জে টিসিবির কার্ড বিতরন নিয়ে দু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত অফিস ভাংচুর আহত-৩

বৃদ্ধের ধর্ষনে কিশোরী গর্ভবতী, মেয়ে এবং পুএ বধুর সহায়তায় গর্ভপাত

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ১৪ বছরের কিশোরীকে আটকে রেখে একাধিকবার ধর্ষণ ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে সিরাজুল ইসলাম (৬০) নামের এক বৃদ্ধকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে গর্ভপাত ঘটানোর সঙ্গে জড়িত থাকায় একটি প্রাইভেট ক্লিনিকের আয়াসহ তিন নারীকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁদপুরের পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এই নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। কীভাবে ধর্ষণ ও গভপাত ঘটানো হয়- এই নিয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ।

পুলিশ সুপার জানান, বৃদ্ধের এমন জঘন্য এবং অনৈতিক কাজে যারা সহযোগিতা করেছে- তাদেরকেও আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। একই সঙ্গে বৃদ্ধ এবং ঘটনার শিকার ১৪ বছরের কিশোরীর ডিএনএ পরীক্ষা করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় কিশোরীটির মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে হাজীগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছেন। এতে অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলাম ছাড়াও আরো তিন নারীকে আসামি করা হয়েছে, যারা কিশোরীটির গর্ভপাত ঘটানোর সঙ্গে জড়িত।

এর আগে ভোরে হাজীগঞ্জের হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের হাড়িয়াইন গ্রামের বাড়ি থেকে অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এসময় সেখানকার একটি বসতঘর থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়। পরে পুলিশ হাজীগঞ্জ বাজারে অভিযান চালিয়ে ইলামিয়া হাসপাতাল নামে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকের আয়া নাজমা বেগমকে গ্রেপ্তার করে। এই নাজমা অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলামের মেয়ে বকুল ও ছেলের স্ত্রী সীমার সহায়তা কিশোরীর গর্ভপাত করায়।

তিনি জানান, গতকাল বুধবার দুপুরে এই হাসপাতালের আয়াকে বাসায় ডেকে নিয়ে গিয়ে কিশোরীর গর্ভপাত ঘটানো হয়। এসময় ওই কিশোরী ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল।

 

এদিকে, ঘটনার দায় স্বীকার করায় দুপুরে অভিযুক্তদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে, ঘটনার শিকার কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দরিদ্র বাবা ও মায়ের অনুপস্থিতিতে দীর্ঘদিন ধরে বৃদ্ধ সিরাজুল ইসলাম কিশোরীকে একা পেয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে অভিযুক্ত তার মেয়ে ও ছেলের স্ত্রীকে দিয়ে হাজীগঞ্জের ইসলামিয়া হাসপাতাল নামে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকের আয়া নাজমা বেগমকে বাসায় ডেকে নিয়ে গর্ভপাত ঘটায়।

আরো পড়ুন  টিসিবির পণ্য কিনে বাড়ি ফেরার পথে কিশোর নিহত

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

ভন্ড আলতাফ হুসাইনের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক শেখ সুমনের উপর হামলা
হাজীগঞ্জে ইমন হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা, ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাসহ আসামি ২৮
ফের চলছে সড়ক দখলের পাঁয়তারা!
ফরিদগঞ্জে প্রবাসীর সরলতার সুযোগ নিয়ে টাকা চুরি \ উল্টো সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যেমে দালাল আখ্যা দিয়ে প্রাননাশেন হুমকি
হাজীগঞ্জে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মেহেদী হাসান মানিকের বিদায় সংবর্ধনা
মতলব উত্তরে ব্যাংকের সিকিউরিটি গার্ডের লাশ উদ্ধার

আরও খবর